নিপাহ ভাইরাসঃ খেজুরের কাঁচারস পান না করার পরামর্শ

নিপাহ ভাইরাসঃ খেজুরের কাঁচারস পান না করার পরামর্শ

খেজুরের কাঁচারস না পান ও আংশিক খাওয়া কোনো ধরনের ফল না খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) আইইডিসিআর থেকে পাঠানো এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, খেজুরের কাঁচারস পানে নিপাহ ভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কা থাকে। আইইডিসিআর ২০০১ সাল থেকে বাংলাদেশে নিপাহ ভাইরাস সংক্রমণের বিষয়ে জনগণকে সতর্ক করে আসছে। নিপাহ একটি ভাইরাসজনিত মারাত্মক রোগ যা বাদুড় থেকে খেজুরের কাঁচারসের ও বাদুড়ের আংশিক খাওয়ার মাধ্যমে মানুষে সংক্রমিত হয়। এছাড়া নিপাহ্ সংক্রমিত রোগীর সংস্পর্শে আসার মাধ্যমেও সুস্থ ব্যক্তি সংক্রমিত হতে পারে। আমরা আবারও মনে করাচ্ছি যে, নিপাহ একটি মারাত্মক রোগ সৃষ্টিকারী ভাইরাস। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে রোগের কোনো চিকিৎসা নেই। ২০০১ সাল থেকে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে এ রোগে মৃত্যু হার সর্বোচ্চ শতকরা ৭০ শতাংশ।

দেশে সাধারণত শীতকালে নিপাহ সংক্রমণ দেখা যায়। আইইডিসিআর এ সময়ে খেজুরের কাঁচারস পানে বিরত থাকা, খেজুরের কাঁচারস পানের উৎসাহ দেয়, এমন কোনো প্রতিবেদন প্রকাশ না করা এবং এ বিষয়ে দেশের সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোর প্রতি খেজুরের রস সংক্রান্ত উৎসবসহ যেকোনো আয়োজন থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানানো হচ্ছে। এ সংক্রান্ত আরও বিস্তারিত তথ্যের জন্য আইইডিসিআরের ওয়েবসাইট (http://https//www.icdce.gov.bd) দেখুন।

এ রোগের প্রধান লক্ষণগুলো: জ্বরসহ মাথা ব্যথা, খিঁচুনি, প্রলাপ বকা, অজ্ঞান হওয়া বা মারাত্মক শ্বাসকষ্ট। এসব লক্ষণগুলো দেখা দিলে প্রয়োজনে আইইডিসিআরের হটলাইন (০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৭, ০১৯২৭৭১১৭৮৫) যোগাযোগ করার অনুরোধ জানানো হচ্ছে।

খবরটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© ২০১৯-২০২০ | সময়ের আয়না কর্তৃক সর্বসত্ব ® সংরক্ষিত